× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

আজ ডিএমপির ৪৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী

প্রবা প্রতিবেদক

প্রকাশ : ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১১:৩০ এএম

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপির) ৪৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। ‘সেবা ও সদাচার, ডিএমপির অঙ্গীকার’-এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে নানা আয়োজনে দিনটি পালিত হবে। 

ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আলাপকালে জানান, ‘শান্তি শপথে বলীয়ান’ ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রতিটি সদস্য নিরাপদ ঢাকা মহানগরী গড়ে তোলার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে। রাজধানীর অপরাধ নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি নাগরিকদের নিরাপত্তায় ডিএমপির থানাগুলোয় সেবার মান বৃদ্ধি করা হয়েছে। দেশের মেগাসিটি হিসেবে স্বল্প জনবল নিয়েও ডিএমপির সদস্যরা জনগণের সেবা ও নিরাপত্তা নিশ্চিতে বদ্ধপরিকর। 

১৯৭৬ সালের পহেলা ফেব্রুয়ারি ছয় হাজার পুলিশ সদস্য এবং ১২ থানা নিয়ে যাত্রা শুরু করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। দীর্ঘ পথপরিক্রমায় বর্তমানে ঢাকা মহানগরীর প্রায় ২ কোটি ২৫ লাখ নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কার্যক্রম ৫০টি থানায় বিস্তৃত হয়েছে। ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে বর্তমানে কাজ করছেন ৬ জন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিআইজি), ১২ জন যুগ্ম পুলিশ কমিশনার (অতি. ডিআইজি), ৫৭ জন উপপুলিশ কমিশনারসহ (এসপি) ৩৪ হাজার অফিসার ও ফোর্স।

ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত রূপকল্প ২০৪১ অনুযায়ী স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার প্রত্যয়ে ডিএমপির সেবা সহজীকরণ এবং দ্রুত স্মার্ট পুলিশিং সেবা প্রদানে চালু হয়েছে মেসেজ টু কমিশনার (এম টু সি)। যার মাধ্যমে ঢাকা মহানগরীর নাগরিকগণ আইনি সেবা, পরামর্শ এবং অপরাধবিষয়ক তথ্য প্রদানের জন্য ০১৩২০-১০১০১০ অথবা ০১৩২০-২০২০২০ নম্বরে সরাসরি বার্তা প্রদান করতে পারেন।

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার বলেন, ‘দুষ্টের দমন, শিষ্টের পালন’ এই নীতিকে ধারণ করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ প্রতিটি সদস্যকে ভালো কাজের জন্য পুরস্কৃত করে থাকে। ডিএমপির কোনো সদস্যের আইনের পরিপন্থি অপরাধমূলক কাজে সম্পৃক্ত হওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেলে, তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। 

ডিএমপি জানিয়েছে, মহানগরীর সকল নাগরিকের জন্য নিরাপদ, নির্ভয় ও নির্বিঘ্ন ঢাকা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ করেছে ৮টি ক্রাইম বিভাগ এবং ৫০টি থানা। ২০২৩ সালে ডিএমপির বিভিন্ন থানায় অপরাধ দমন ও উদঘাটনে সর্বমোট ২৫ হাজার ৯০২টি মামলা করা হয়েছে। বর্তমান কমিশনারের উদ্যোগে ছিনতাই প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণে ‘ছিনতাই প্রতিরোধ টাস্কফোর্স’ গঠিত হয়েছে। ডিএমপি ক্রাইম বিভাগের মামলা মনিটরিং সেল ৫০টি থানায় ৪৭৯টি জনগুরুত্বপূর্ণ ও চাঞ্চল্যকর মামলা আলোচনাপূর্বক নিষ্পত্তির নির্দেশনা দিয়েছে। 

বিট পুলিশিংয়ের আওতায় ৩০৬টি বিটে কর্মরত বিট অফিসাররা ঢাকা মহানগরীতে বসবাসরত সকল নাগরিকের তথ্য সংগ্রহ করে সফটওয়্যারে সংরক্ষণ করছে। ইতোমধ্যে ডিসেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত ৪,১৪,৮২,৩১৪ জন নাগরিকের তথ্য সংরক্ষণ করা হয়েছে। 

গত এক বছরে প্রসিকিউশন বিভাগের তত্ত্বাবধানে আদালত কর্তৃক বিচারাধীন মামলার মধ্যে ১৫ হাজার ৫৩৭টি মামলা নিষ্পত্তি করা সম্ভব হয়েছে, যেখানে ৪ হাজার ৭৫৬ জন অপরাধীর সাজা হয়েছে। ডিএমপির পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্ভিস সেল থেকে ২০২৩ সালে ৫৩২৮৯টি আবেদন নিষ্পত্তি করা হয়। প্রবাসী লিগ্যাল সার্ভিস সেলে প্রবাসীদের কাছ থেকে ২০২৩ সালে প্রাপ্ত ১৪৫টি অভিযোগের মধ্য থেকে নিষ্পত্তি হয় ১১৪টি এবং ৩১টি অভিযোগ তদন্তাধীন রয়েছে।

ডিএমপির ডিটেকটিভ ব্রাঞ্চ (ডিবি) জনগুরুত্বপূর্ণ, চাঞ্চল্যকর ও ক্লুলেস মামলার তদন্তে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে আসছে। মামলা তদন্তের পাশাপাশি মাদকদ্রব্য, চোরাইগাড়ি, জাল টাকা, চোরাই মোবাইল উদ্ধারেও মাইলফলক অর্জন করেছে। এ ছাড়াও সাইবার অপরাধী ও সংঘবদ্ধ অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে কাজ করে যাচ্ছে ডিবি সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ। ডিএমপির কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ২০১৬ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে ২৭টি উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ অপারেশন পরিচালনা করেছে। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যাবধি ১৬১৯টি মামলায় ২২৪৭ জন উগ্রবাদী সন্ত্রাসী এবং জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করেছে। ২০২৩ সালে সিটিটিসি জঙ্গিবাদে জড়িত ৩৮ সদস্যের ডি-রেডিক্যালাইজেশন কাউন্সেলিং কার্যক্রম সম্পন্ন করে ১৭ জনকে পুনর্বাসনে সহায়তা দিয়েছে। সিটিটিসি রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগ বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থার সঙ্গে সমন্বয়পূর্বক সন্ত্রাসবাদ বিষয়ে ৯টি গবেষণাকর্মও শেষ করেছে।

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: protidinerbangladesh.pb@gmail.com

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: pbad2022@gmail.com

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: pbonlinead@gmail.com

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: pbcirculation@gmail.com

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা