× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

ঢাকার পথে পণ্যবাহী ট্রাক থেকে চাঁদা আদায়, গ্রেপ্তার ৫১

প্রবা প্রতিবেদক

প্রকাশ : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২০:০১ পিএম

আপডেট : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২০:৫০ পিএম

ঢাকার পথে পণ্যবাহী ট্রাক থেকে চাঁদা আদায়, গ্রেপ্তার ৫১

ঢাকার প্রবেশপথগুলোয় পণ্যবাহী ট্রাক থেকে চাঁদা আদায় করে একটি চক্র। বিভিন্ন সংগঠন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নামে চাঁদাবাজির কারণে অযৌক্তিকভাবে নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে বলে দাবি করেছে র‌্যাব। ঢাকায় অন্তত পাঁচ থেকে ছয়টি স্থানে পণ্যবাহী ট্রাক থেকে ২০০ থেকে ৩০০ টাকা চাঁদা আদায় করা হয়।

রবিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সংস্থাটির আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন। 

তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি অযৌক্তিক ও অপ্রয়োজনীয়ভাবে নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। এজন্য আমরা গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করি। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ঢাকার বিভিন্ন প্রবেশমুখ ও পাইকারি বাজার এলাকায় পণ্যবাহী ট্রাক থেকে চাঁদা উত্তোলনের সময় হাতেনাতে ৫১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। শনিবার ভোরে একযোগে রাজধানীর বেশ কয়েকটি এলাকায় এই অভিযান পরিচালনা করে র‍্যাব। কারওয়ান বাজার, বাবুবাজার, গুলিস্তান, দৈনিক বাংলা মোড়, ইত্তেফাক মোড়, টিটিপাড়া, কাজলা, গাবতলী, ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টারসহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।

‘গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে ১ লাখ ১২ হাজার টাকা, একটি লেজার লাইট, সিটি করপোরেশনসহ ছয় প্রতিষ্ঠানের জ্যাকেট, দুটি অন্যান্য লাইট, চারটি আইডি কার্ড, ৪১টি মোবাইল ফোন ও বিপুল পরিমাণ চাঁদা আদায়ের রসিদ উদ্ধার করা হয়েছে।’

খন্দকার মঈন বলেন, ‘ড্রাইভাররা চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে তাদের গাড়ি ভাঙচুর, ড্রাইভার-হেলপারকে মারধরসহ প্রাণনাশের হুমকি দেয় এই চাঁদাবাজরা। তারা প্রতিটি ট্রাক ও পণ্যবাহী যানবাহন থেকে ২০০ থেকে ৩০০ টাকা চাঁদা আদায় করে থাকে। কখনও সিটি করপোরেশন, কখনও শ্রমিক সংগঠন, কখনও কল্যাণ সমিতি, কখনও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নামে এই চাঁদা আদায় করা হয়।’ 

তিনি বলেন, ‘মধ্যরাতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় যখন পণ্যবাহী ট্রাক ঢাকায় প্রবেশ করে, তখন চাঁদা উত্তোলন শুরু হয়। একটি গ্রুপ চাঁদা উত্তোলন করে কথিত ইজারাদারদের কাছে জমা দেয়। তারা সিন্ডিকেটের মধ্যে টাকা ভাগবাটোয়ার করে। চাঁদা উত্তোলনকারীরা প্রতি রাতে মজুরি হিসেবে ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা পায়। প্রতিটি স্পট থেকে প্রতিদিন লক্ষাধিক টাকা চাঁদা আদায় করে তারা।‘ 

কমান্ডার বলেন, রমজানকে সামনে রেখে তাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। চাঁদাবাজির সিন্ডিকেটের সঙ্গে জড়িত ওপরের লেভেলের কয়েকজনের নাম পেয়েছি। আমরা তা যাচাই-বাছাই করছি। তারা যে সংস্থারই হোক, অথবা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কেউ হোক, তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: protidinerbangladesh.pb@gmail.com

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: pbad2022@gmail.com

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: pbonlinead@gmail.com

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: pbcirculation@gmail.com

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা