× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

মুন্সীগঞ্জ-১

চার হেভিওয়েটে জমজমাট লড়াই

তানভীর হাসান, মুন্সীগঞ্জ

প্রকাশ : ০৬ জানুয়ারি ২০২৪ ১৭:৩২ পিএম

আপডেট : ০৬ জানুয়ারি ২০২৪ ১৮:০৬ পিএম

চার হেভিওয়েটে জমজমাট লড়াই

আনুষ্ঠানিকভাবে শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় শেষ হয়েছে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচার। তবে কার্যত গত বৃহস্পতিবার রাতেই ভোটের প্রচার শেষ করেছেন প্রার্থীরা। রবিবার (৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় শুরু হবে ভোট গ্রহণ। এখন শুধুই অপেক্ষা। মুন্সীগঞ্জ-১ আসনেও (শ্রীনগর-সিরাজদিখান) শেষদিনের প্রচারণায় প্রার্থীরা যার যার অবস্থান জানান দিয়েছেন। 

তৃণমূল বিএনপির প্রার্থী দলের নির্বাহী চেয়ারপারসন অন্তরা সেলিমা হুদা (সোনালী আঁশ) শতাধিক ট্রাক নিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন। বিকল্পধারার মুখপাত্র মাহী বি চৌধুরী (কুলা) সিরাজদিখানের কুসুমপুরে শান্তির মেলা নামে উৎসবের আয়োজন করে ব্যতিক্রমী নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন। শেষ দিনের প্রচারণায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী মহিউদ্দিন আহমেদ (নৌকা) শ্রীনগর উপজেলায় ঘুরে ঘুরে উঠান বৈঠক করেছেন। পিছিয়ে ছিলেন না ঢাকা মাহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম সারোয়ার কবিরও (ট্রাক)। তিনিও শ্রীনগর পাইলট স্কুল মাঠে সমাবেশ করেছেন। 

 মুন্সীগঞ্জ-১ আসনে এ চারজনসহ ৯জন প্রার্থী ভোটের মাঠে। তবে স্থানীয় ভোটার ও রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আগামীকালের ভোটে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে এ চারজনেরই মধ্যে। অবশ্য সরেজমিনে শ্রীনগর ও সিরাজদিখান উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে তাদের বক্তব্যের সত্যতাও পাওয়া গেছে। কারণ এসব এলাকায় এ চারজন ছাড়া অন্য প্রার্থীদের পোস্টার-ব্যানার-ফেস্টুন তেমন একাটা চোখে পড়েনি। মাঠে ছিলেন না প্রচার-প্রচারণা নিয়েও। জয়ের ব্যাপারেও চারজনেই আশাবাদী। 

তৃণমূল বিএনপির অন্তরা হুদা ও বিকল্পধারার মাহী বি চৌধুরী প্রার্থী থাকায় আসনটি জাতীয় রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ। এখানে কে হবেন বিজয়ীÑ সেদিকে দৃষ্টি সবার। মাহী ও অন্তরা দুজনই তাদের অতীতের ঐতিহ্য কাজ লাগিয়ে নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে চাইছেন। আবার পিছিয়ে নেই মহিউদ্দিন ও কবিরও।

তৃণমূল বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক মন্ত্রী নাজমুল হুদার নির্বাচনী এলাকা ঢাকা-১ (দোহার-নবাবগঞ্জ) হলেও তার মেয়ে অন্তরা হুদা এ আসনে নির্বাচনে লড়ছেন। অন্তরা সেলিমা হুদার দাদা ও বড় দাদার বাড়ি শ্রীনগর উপজেলার বাঘরা ইউনিয়নে। ফলে বংশগত কারণে বাঘরা ইউনিয়নে তার ভোট ব্যাংক রয়েছে। তবে দলের ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে কমিটি না থাকায় তেমন শক্তিশালী কর্মী বাহিনী নেই তার। তিনি বংশের পরিচিতি ও শিকড়কে কাজ লাগিয়ে ভোটারদের মন জয় করার চেষ্টা করেছেন।

অন্তরা সেলিমা হুদা বলেন, ‘এই এলাকায় আমার দাদার বাড়ি। নতুন দল হিসেবে এবারই প্রথম নির্বাচনে এসেছি। ভোটারদের মধ্যে ব্যাপক সারা ফেলতে পেরেছি। নির্বাচনে আমি বিজয়ী হব।’

দুইবারের সংসদ সদস্য বিকল্পধারার মাহী বি চৌধুরীরও দলীয় নেতাকর্মী কম। তবে তিনি দাদা কফিল উদ্দিন চৌধুরী ও বাবা সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর ঐতিহ্য কাজে লাগিয়ে ভোটারদের মন জয় করতে চাইছেন। এ ছাড়া দুই উপজেলায় তার নীরব ভোট রয়েছে এমন গুঞ্জন আছে। মাহী বি চৌধুরীও তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হতে মরিয়া হয়ে কাজ করছেন। 

মাহী বি চৌধুরী বলেন, ‘বিকল্পধারা রাজনীতির যত চিটা কুলা দিয়ে উড়িয়ে দেবে। বিক্রমপুরের মানুষ চৌধুরী পরিবারকে ১০ বার নির্বাচিত করেছে। এই আসনের সঙ্গে চৌধুরী পরিবারের ইজ্জত জড়িয়ে আছে। এবারও ভোট দিয়ে চৌধুরী পরিবারের ইজ্জত রক্ষা করবে।’

আওয়ামী লীগের মহিউদ্দিন আহমেদ সিরাজদিখান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থেকে পদত্যাগ করে প্রার্থী হয়েছেন। তার বাড়িও এ উপজেলায়। ফলে অন্যান্য ৩ প্রার্থীর চেয়ে আঞ্চলিক সুবিধার পাল্লা তার দিকে ভারী। এ ছাড়া শ্রীনগর ও সিরাজদিখানে আওয়ামী লীগসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকরাও তার পক্ষে কাজ করছেন। 

মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘জোটগত কারণে গতবার এই আসনটি ছেড়ে দিতে হয়েছিল। এবার জোটগত সিদ্ধান্ত যে যার মতো নির্বাচন করছে। ফলে এবার নৌকার প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছি। নৌকা উন্নয়নের প্রতীক। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ভোটাররা নৌকাকে বেছে নেবেন।’

অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম সারোয়ার কবির শ্রীনগর উপজেলা ছাত্রলীগ ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহসভাপতি ছিলেন। বর্তমানে তিনি ঢাকা মাহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। তরুণ প্রজন্মের মধ্যে তার জনপ্রিয়তা রয়েছে। তার জন্য তরুণদের পাশাপাশি ও ছাত্রলীগের একাশেংর নেতাকর্মীরাও কাজ করছেন।

জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী গোলাম সারোয়ার কবির বলেন, ‘ভোটারদের মাঝে ব্যাপক সারা পেয়েছি। ট্রাক প্রতীকের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে।’

চারজনই আশাবাদী হলেও শেষ হাসি কে হাসবেনÑ এজন্য অপেক্ষা করতে হবে নির্বাচনের ফলাফল পর্যন্ত। এ আসনের মোট ভোটার ৫ লাখ ৮ হাজার ৯৮৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৬১ হাজার ৮৪৭ জন। আর নারী ২ লাখ ৪৭ হাজার ১৩৮ জন। 

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: protidinerbangladesh.pb@gmail.com

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: pbad2022@gmail.com

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: pbonlinead@gmail.com

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: pbcirculation@gmail.com

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা