× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

আগুনে বসতঘরে নাতি গোয়ালঘরে দাদির মৃত্যু

প্রবা প্রতিবেদন

প্রকাশ : ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২২:২৫ পিএম

মঙ্গলবার সকালে রাঙামাটি জেলা শহরের রিজার্ভমুখ এলাকার হেদায়েতুল ইসলাম ও মো. সেন্টু মিয়ার বসতঘরে আগুন লেগেছে। আগুনে ঘর দুটির অধিকাংশ পুড়ে গেছে। প্রবা ফটো

মঙ্গলবার সকালে রাঙামাটি জেলা শহরের রিজার্ভমুখ এলাকার হেদায়েতুল ইসলাম ও মো. সেন্টু মিয়ার বসতঘরে আগুন লেগেছে। আগুনে ঘর দুটির অধিকাংশ পুড়ে গেছে। প্রবা ফটো

শেরপুরে আগুনে পুড়ে প্রাণ হারালেন দাদি ও নাতি। সোমবার দিবাগত রাতে সদরের পয়েস্তিরচর  এলাকায় বসতঘরে লাগা আগুন মহুর্তে মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। এতে ঘুমন্ত অবস্থায় শিশু শরিফ (৬) পুড়ে অঙ্গার হয়। অপরদিকে গরু বাচাঁতে গিয়ে দগ্ধ হয় সাবেক মহিলা মেম্বার ফিরোজা বেগম (৭০)। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

শরীফ মৃত ফিরোজা বেগমের নাতি। এছাড়া একই রাতে ও মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে দেশের বিভিন্ন জেলায আরও চারটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে বসতঘর, দোকান, গ্যারেজসহ বিভিন্ন স্থাপনা ভস্মিভূত হয়। প্রত্যক্ষদর্শী, ফায়ারসার্ভিস ও পুলিশসূত্রে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

জানা যায়, ভোর রাতে পয়েস্তিরচর গ্রামে আমান উল্লাহ মন্টুর বাড়ির বসতঘরের লাগা আগুন মুহুর্তেই দুটি গোয়ালঘরেও ছড়িয়ে পড়ে। এতে ঘর তিনটির পাশাপাশি চারটি গরুও মারা যায়। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে শিশু শরিফের মরদেহ উদ্ধার করে এবং আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফিরোজা বেগমকে হাসপাতালে পাঠায়। তবে আগুনের উৎস সম্পর্কে নিশ্চত হওয়া যায়নি।

নেত্রকোনার বারহাট্টায় কৃষকের গোয়াল ঘরে আগুন লেগে ৮টি গরু পুড়ে মারা গেছে। জানা গেছে, আসমা গ্রামের শেখ হাবিবুর রহমান ও শেখ আতিকুর রহমান দুই ভাই তাদের আটটি গরু একই গোয়ালে রাখেন। গোয়ালে শুকনো খড় থাকায় হঠাৎ লাগা আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ছুটে আসলেও ততক্ষণে গোয়লঘর পুড়ে ছাই হওয়ার পাশাপাশি আটটি গরু পুড়ে মারা যায়। 

তবে গরুর মালিক দুই ভাইয়ের অভিযোগ- প্রতিবেশী কয়েকজনের সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে তাদের। এসব নিয়ে আদালতে মামলাও চলমান আছে। হয়তো তারাই শত্রুতা করে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটিয়েছে।

বারহাট্টা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। প্রতিবেশী যাদের সাথে পূর্ববিরোধ রয়েছে এ ঘটনায় তাদের হাত আছে বলে সন্দেহ করছেন ভুক্তভোগীরা। যদি এমনটা হয় তাহলে তাদেরকে লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ফেনীর বাসপাড়ার দেবাঙ্গন ভবনের নিচতলা গ্যারেজে মঙ্গলবার সকালে অগ্নিকাণ্ডে ৩টি মোটরসাইকেল পুড়ে গেছে। তবে এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি। 

ফেনী ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. আবদুল মজিদ জানান, সকালে খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে। ভবনের নীচতলার গ্যারেজে আগুনের প্রচুর ধোঁয়া দেখা যায়। তাৎক্ষণিকভাবে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে আগুন নিয়ন্ত্রণ আসে। তবে এতে হতাহতের কোনো ঘটনা না ঘটলেও গ্যারেজে থাকা তিনটি মোটরসাইকেল, একটি বাইসাইকেল ইলেকট্রিক বোর্ড এবং প্লাস্টার পল সিলিং পুড়ে যায়। ধারণা করা হচ্ছে বিদ্যুতের শটসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তদন্ত সাপেক্ষে বলা যাবে বলে।

লক্ষ্মীপুরে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগে মনির হোসেন নামে এক ডিম ব্যবসায়ীর বসতঘর ও দুটি রান্নাঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। হঠাৎ চোখ খুলে আগুন দেখতে পেয়ে ঘুমন্ত সন্তানদের জাগিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে প্রাণে বাঁচেন মনিরের স্ত্রী মাইনুল বেগম। তবে ঘরে থাকা মূল্যবান আসবাবপত্রসহ ২ লাখ টাকা ও একটি মোটরসাইকেল পুড়ে গেছে। ঘর, নগদ টাকা ও মোটরসাইকেল পুড়ে গিয়ে মনির এখন সর্বশান্ত হয়ে পড়েছেন। সদর উপজেলার টুমচর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্য টুমচর গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

লক্ষ্মীপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার রঞ্জিত কুমার সাহা বলেন, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। আগুনে একটি বসতঘর, দুটি রান্না ঘর, একটি মোটরসাইকেল পুড়ে গেছে। নগদ টাকা পুড়ে গেছে বলেও ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী জানিয়েছেন।

রাঙামাটি শহরের রিজার্ভ মুখ এলাকায় আগুনে পুড়ে গেছে দুইটি বসতঘর। মঙ্গলবার সকালে সাড়ে নয়টার দিকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এতে পুড়ে যায় দুইটি বসতঘর। পুড়ে যাওয়া ঘর দুটির মালিক যাথাক্রমে মো. হেদায়েতুল ইসলাম বাচ্চু ও মো. সেন্টু।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সকাল সাড়ে নয়টার দিকে মো. হেদায়েতুল ইসলাম বাচ্চুর বাসা থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। পড়ে ফায়ার সার্ভিস এসে প্রায় আধাঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

মো. হেদায়েতুল ইসলাম বাচ্চু জানান, আমার ঘরে আগুনের সূত্রপাত কোথেকে তা বলতে পারছি না। আমার ছোট মেয়ে এসএসসি পরীক্ষা। তাকে নিয়ে তার মা পরীক্ষাকেন্দ্রে গেছে। বাসায় কেউ ছিল না। বাসার সব আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। কিছুই বের করা যায়নি।

রাঙামাটি ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক দিদারুল আলম জানান,  আমরা খবর পাওয়ার সাথে সাথে ফায়ার সার্ভিসের চারটি গাড়ি ঘটনাস্থলে গিয় আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করি। আগুনের সূত্রপাত কিভাবে তা আমরা এখনো বলতে পারছি না। 

(প্রতিবেদন তৈরিতে সহায়তা করছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার প্রতিবেদকরা।)

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: protidinerbangladesh.pb@gmail.com

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: pbad2022@gmail.com

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: pbonlinead@gmail.com

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: pbcirculation@gmail.com

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা