× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

নরসিংদীতে ব্যবসায়ীকে বঁটি দিয়ে হত্যা

আড়াইশ টাকার মোবাইলে খুলল খুনের জট

প্রবা প্রতিবেদক

প্রকাশ : ১০ মার্চ ২০২৪ ২০:৩৪ পিএম

আপডেট : ১০ মার্চ ২০২৪ ২১:০৫ পিএম

আড়াইশ টাকার মোবাইলে খুলল খুনের জট

২০২৩ সালের ১৪ নভেম্বর নিজ বাসায় খুন হন নরসিংদীর মিষ্টি ব্যবসায়ী নির্মল দেবনাথ। কে বা কারা তাকে হত্যার পর সঙ্গে থাকা টাকাপয়সা ও মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনার সময় ভুক্তভোগীর বাড়িতে কেউ না থাকায় বিষয়টি নিয়ে তৈরি হয় ধোঁয়াশা। ক্লুলেস এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতকে গ্রেপ্তার করতে প্রায় পাঁচ মাস সময় লাগে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর। পিবিআইয়ের দাবি, ভুক্তভোগীকে বঁটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যার পর সঙ্গে থাকা টাকাপয়সা ও ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যায় হত্যাকারী। ওই মোবাইল ফোন বিক্রি করে দেওয়া হয় আড়াইশ টাকায়। নরসিংদী থেকে খোয়া যাওয়া বাটন মোবাইলটি পাওয়া যায় ঠাকুরগাঁওয়ে। এর সূত্র ধরে জানা যায়, চারজনের হাতবদল হয়ে মোবাইল ফোনটি ঠাকুরগাঁওয়ে গিয়ে সচল হয়। এরপর ৬ মার্চ মাধবদী থানার অজপাড়াগাঁয় অভিযান চালিয়ে মাসুম বিল্লাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)

রবিবার (১০ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডি পিবিআই সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পিবিআইর অতিরিক্ত ডিআইজি মো. এনায়েত হোসেন মান্নান। তিনি বলেন, নরসিংদীর মাধবদীর দক্ষিণ বিরামপুর এলাকার নির্মল দেবনাথ পেশায় একজন মিষ্টি কারিগর ও ব্যবসায়ী। ঘটনার আগের দিন গত বছরের ১৪ নভেম্বর নির্মলের স্ত্রী মনি দেবনাথ তার সন্তানদের নিয়ে ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালনে বাবার বাড়িতে যান। পেশাগত কাজ শেষে রাতে নির্মল একাই বাড়িতে এসে ঘুমিয়ে যান। পরদিন ১৫ নভেম্বর সকালে বাড়ি ফিরে নির্মলের স্ত্রী দেখেন প্রধান ফটক খোলা। ঘরের আসবাব ও কাপড়চোপড় এলোমেলো অবস্থায় পড়ে আছে। একই সঙ্গে পাশের রুমের খাটের ওপর নির্মলের রক্তাক্ত মরদেহ দেখতে পান। এ ঘটনায় নিহত ব্যক্তির ছেলে বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা করেন। ঘটনার এক মাস পর পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশে মামলার তদন্তের দায়িত্ব পায় পিবিআই।

তদন্তে নেমে প্রথমে চুরি যাওয়া মোবাইল ফোনটি উদ্ধারের চেষ্টা করেন তারা। তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে পিবিআইয়ের তদন্তকারী কর্মকর্তারা জানতে পারেন, নির্মলের মোবাইল ফোনটি ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর এলাকায় এক নারী ব্যবহার করছেন। পরে অভিযান চালিয়ে সেটি উদ্ধার করা হয়।

অতিরিক্ত ডিআইজি এনায়েত হোসেন মান্নান বলেন, মোবাইল ফোনটির ব্যবহারকারী ওই নারী তদন্ত কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন, মাধবদীতে কর্মরত থাকা অবস্থায় তার প্রেমিক সাকিল এটি তাকে উপহার দেন। এ তথ্যের ভিত্তিতে সাকিলকে নরসিংদীর পলাশ থানা এলাকা থেকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে সাকিল জানিয়েছেন, রবিন নামের একজনের কাছ থেকে মাত্র ২৫০ টাকায় মোবাইল ফোনটি কিনে লাইলীকে দেন সাকিল। সাকিলকে আটকের খবরে রবিন আত্মগোপনে চলে যান। পরে মাধবদী থানার প্রত্যন্ত এলাকা থেকে রবিনকে আটক করা হয়। রবিনের ফুফাতো ভাই মাসুম বিল্লা মোবাইল ফোনটি বিক্রির জন্য দিয়েছিলেন। এবার মাসুম বিল্লাকে গ্রেপ্তারে মাঠে নামেন তদন্ত কর্মকর্তারা। এদিকে মামাতো ভাই রবিন আটকের খবরে গা-ঢাকা দেন মাসুম। একপর্যায়ে নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায় পিবিআই। তবে বারবারই ফাঁকি দেন মাসুম। পরে মাধবদীতে নিজ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার হন মাসুম।

মাসুম একজন পেশাদার চোর। তার বিরুদ্ধে চুরির একাধিক মামলা রয়েছে। কারাগার থেকে বের হয়েই চুরি করেন। তেমনই চুরির উদ্দেশ্যে নির্মল দেবনাথের বাড়িটি নিরিবিলি দেখে টার্গেট করেন। প্রথমে রান্নাঘরের ভেন্টিলেটর ও জানালা দিয়ে ঢুকতে ব্যর্থ হন। পরে বাসার ছাদে গিয়ে দরজা খোলা পেয়ে ভেতরে ঢোকেন। বিভিন্ন জিনিস নিয়ে যাওয়ার জন্য সংগ্রহ করেন। মাসুম নির্মলের মাথার বালিশের নিচে থাকা মোবাইল ফোন ও টাকার ব্যাগ নিতে যান। তখন ঘুম ভেঙে যায় নির্মলের। নির্মল চিৎকার দিলে পালানোর চেষ্টা করেন মাসুম। তবে বাড়ির প্রধান গেট বন্ধ থাকায় বের হতে পারেননি। মাসুমকে বঁটি দিয়ে কোপ দেওয়ার চেষ্টা করেন ব্যবসায়ী নির্মল। সেই বঁটি কেড়ে নিয়ে নির্মলকে নির্মমভাবে কুপিয়ে গেট খুলে পালিয়ে যান মাসুম। পরে নির্মলের মোবাইল ফোনটি বিক্রি করতে মামাতো ভাই রবিনকে দেন মাসুম। গ্রেপ্তারের পর হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন মাসুম। বর্তমানে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: protidinerbangladesh.pb@gmail.com

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: pbad2022@gmail.com

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: pbonlinead@gmail.com

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: pbcirculation@gmail.com

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা