× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

রংপুরে বরাদ্দ নেই নতুন ট্রেন, এখনই সূচি বিপর্যয়

রংপুর অফিস

প্রকাশ : ২৯ মার্চ ২০২৪ ১৫:৩৫ পিএম

আপডেট : ২৯ মার্চ ২০২৪ ১৫:৩৯ পিএম

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রতিবছর বিভিন্ন রুটে নতুন ট্রেন বরাদ্দ হলেও এবারও বৈষম্যের শিকার রংপুর বিভাগ। নতুন ৮ জোড়া ট্রেন বরাদ্দের মধ্যে রংপুর বিভাগে নেই একটিও। এ নিয়ে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে রংপুরবাসীর মধ্যে। এদিকে নতুন ট্রেন না পেলেও ঢাকাগামী আন্তঃনগর ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় শুরু হয়েছে। লালমনিরহাট রেলওয়ে বিভাগের ১০ জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন ছাড়ছে নির্দিষ্ট সময়ের অনেক পরে। ফলে ঈদযাত্রায় নতুন করে ভোগান্তির সঙ্গে বাড়বে শিডিউল বিপর্যয়। 

পশ্চিমাঞ্চলীয় রেলের লালমনিরহাট বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, লালমনিরহাট বিভাগ থেকে ১০ জোড়া অর্থাৎ ২০টি আন্তঃনগর ট্রেন ঢাকায় যাতায়াত করে। এগুলো হচ্ছে রংপুর এক্সপ্রেস, লালমনি এক্সপ্রেস, বুড়িমারী এক্সপ্রেস, কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস, পঞ্চগড় এক্সপ্রেস, একতা, দ্রুতযান, দোলনচাঁপা, করতোয়া এক্সপ্রেস ও বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস। প্রতিদিন এসব ট্রেনে ৮ থেকে ১০ হাজার যাত্রী ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করে। ঈদকে কেন্দ্র করে যাত্রীর সংখ্যা দুই-তিন গুণ পর্যন্ত বাড়ে। যাত্রীদের চাপ কমাতে বিশেষ ট্রেন চালুর উদ্যোগ নেওয়া হলেও বরাদ্দের বেলায় রংপুর বরাবরই উপেক্ষিত। অথচ রাজধানী ঢাকা থেকে ঈদ করতে ঘরে ফেরা রংপুর বিভাগের মানুষের সংখ্যাই বেশি। 

এদিকে ঈদের আগেই রংপুর বিভাগে চলাচলকারী ট্রেনগুলোর শিডিউল বিপর্যয় শুরু হয়েছে। যাত্রীদের অভিযোগÑ রংপুর এক্সপ্রেস, লালমনিরহাট এক্সপ্রেস, কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনগুলো প্রতিদিনই প্রায় ৫ ঘণ্টা পর্যন্ত দেরিতে ছাড়ছে। প্রতিটি রেলস্টেশনে যাত্রীদের অপেক্ষা করতে হচ্ছে। ট্রেনের আসা-যাওয়ার সঠিক তথ্য না থাকায় ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে তাদের। বিশেষ করে চাকরি কিংবা পরীক্ষায় অংশ নিতে যাতায়াত করা মানুষেরা সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়ছে। রমজানে শিডিউল বিপর্যয়ে যাত্রীদের নামাজ, সেহরি ও ইফতারে সমস্যা হচ্ছে। 

নগরীর খামার এলাকার মনিরুজ্জামান বলেন, রংপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ রংপুর এক্সপ্রেস ছাড়ার কথা থাকলেও তা ঢাকার উদ্দেশে অনেক দেরিতে যাত্রা শুরু করে। বেশ কিছুদিন ধরে ট্রেনের এমন শিডিউল বিপর্যয় হচ্ছে। ঈদের আগে এভাবে চলতে থাকলে বাড়িফেরা মানুষের সমস্যায় পড়তে হবে। 

পাগলাপীর এলাকার নভেল চৌধুরী বলেন, ঈদের আগে শিডিউল বিপর্যয়ের সঙ্গে রেল কর্মকর্তাদের স্বার্থ জড়িত থাকে। তারা ইচ্ছে করেই রেলসেবার স্বাভাবিক গতি বাধাগ্রস্ত করে। যাতে সাধারণ মানুষ সড়কপথে যাতায়াত করে। ফলে সড়কে যাত্রীদের চাপ বাড়ছে। আর গাড়ির সংখ্যা বৃদ্ধি পেলে দুর্ঘটনায় বাড়ে মানুষের প্রাণহানি। 

নগরীর মাহিগঞ্জ এলাকার শিক্ষক হাসেম আলী বলেন, রংপুর বিভাগ থেকে বেশিরভাগ মানুষ ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট এলাকায় কাজ করে। বিপুল সংখ্যক মানুষ পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে বাড়ি আসে। প্রতি বছর নতুন ট্রেন বরাদ্দ হলেও রংপুর থাকে উপেক্ষিত। এমন বৈষম্যে নিরসনে সরকারকে উদ্যোগী হওয়া উচিত। 

রংপুর মহানগর সুজনের সভাপতি অধ্যক্ষ খন্দকার ফখরুল আনাম বেঞ্জু বলেন, স্বাধীনতার আগে ও পরে রংপুর অঞ্চলের সঙ্গে সরকারের যে বিমাতাসুলভ মনোভাব ছিল তা এখনও যায়নি। বিগত সময়ে রেলের উন্নয়ন নিয়ে আমাদের অনেক কাগজে পরিকল্পনা দেখানো হয়েছে কিন্তু তা এখন পর্যন্ত দৃশ্যমান হয়নি। ২৮২ বছরের পুরোনো ঐতিহ্যবাহী রংপুর জেলা হলেও এখানে রেল ব্যবস্থার উন্নয়ন হয়নি। রংপুর বিভাগ থেকে সারা দেশে ধান, আলু, কয়লা, কঠিন শিলা রপ্তানি হয়। লাখ লাখ মানুষ ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকরি করছে। কিন্তু তাদের যাতায়াতের জন্য কোনো বিশেষ ট্রেন বরাদ্দ নেই। অবিলম্বে ঈদ উপলক্ষে রংপুরে বিশেষ ট্রেন বরাদ্দসহ রংপুর-ঢাকা ইন্টারসিটি রেল চালুর জোর দাবি জানাচ্ছি। 

রংপুর রেলস্টেশনের সুপার শংকর গাঙ্গুলী প্রতিদিনের বাংলাদেশকে বলেন, রংপুর এক্সপ্রেসসহ অন্য ট্রেন কিছুটা দেরিতে ছাড়লেও শিডিউল বিপর্যয়ের শঙ্কা নেই। ট্রেন দেরিতে আসা-যাওয়ার কারণ অনেক স্থানে সিঙ্গেল লাইন রয়েছে। এছাড়া ট্রেনের ক্রসিংয়েও সময় ক্ষেপণ হচ্ছে।

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: protidinerbangladesh.pb@gmail.com

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: pbad2022@gmail.com

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: pbonlinead@gmail.com

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: pbcirculation@gmail.com

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা