× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

ট্রেনে আগুন দেওয়ার আগে ১৭ মিনিটের ভার্চুয়াল মিটিংয়ে যে আলোচনা হয়

প্রবা প্রতিবেদক

প্রকাশ : ০৬ জানুয়ারি ২০২৪ ১৭:২৪ পিএম

আপডেট : ০৬ জানুয়ারি ২০২৪ ১৯:০৭ পিএম

ঢাকায় ট্রেনে আগুনে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার রাতে গোপীবাগ রেললাইনে। ছবি : আরিফুল আমিন

ঢাকায় ট্রেনে আগুনে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার রাতে গোপীবাগ রেললাইনে। ছবি : আরিফুল আমিন

বিএনপির উচ্চপর্যায়ের (হাইপ্রোফাইল) নেতারা ভিডিও কনফারেন্সে বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেনে আগুন দেওয়ার পরিকল্পনা করেন। তাদের ১৭ মিনিটের ভার্চুয়াল মিটিংয়ে ট্রেনে আগুন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় মিটিংটি অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের আহ্বায়ক খন্দকার এনামুল হক এনামের সভাপতিত্বে এই মিটিংয়ে একজনকে দায়িত্ব দেওয়া হয় ট্রেনে আগুন দেওয়ার জন্য। এর পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার রাত ৯টা ৫ মিনিটে বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেনে আগুন দেওয়া হয়। ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) অনুসন্ধানে এসব তথ্য বেরিয়ে এসেছে।

ভোট ঠেকাতে বিএনপির ডাকা ৪৮ ঘণ্টার হরতালের আগের দিন শুক্রবার রাতে রাজধানীর গোপীবাগে ট্রেনে আগুনে চারজন নিহত হয়েছে। আরও আটজন দগ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ নবী উল্লাহ নবীসহ ৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি।

গ্রেপ্তার বাকিরা হলেন, যুবদল নেতা কাজী মনসুর আলম, মো. ইকবাল হোসেন স্বপন, মো. রাসেল, দেলোয়ার হাকিম বিপ্লব, মো. সালাউদ্দিন, মো. কবির, মো. হাসান আহমেদ।

ডিবি সূত্র জানায়, গ্রেপ্তারের পর ডিবির জিজ্ঞাসাবাদে ট্রেনে আগুন দেওয়ার পরিকল্পনার ব্যাপারে যুবদল নেতা কাজী মনসুর জানান–বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল মিটিংয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক খন্দকার এনামুল হক এনাম, যুবদল নেতা রবিউল ইসলাম নয়নসহ আরও অনেকে ছিলেন। প্রায় ১৭ মিনিট ধরে মিটিংটি চলে। মিটিংয়ে দুটি সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রথম সিদ্ধান্ত– ভোটকেন্দ্রে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো, যাতে ভোটাররা ভয়ে ভোটকেন্দ্রে না আসে। দ্বিতীয় সিদ্ধান্ত হয় ট্রেনে আগুন দেওয়ার।

ডিবি জানায়, মিটিংয়ে যুবদল নেতা রবিউল ইসলাম নয়ন জিজ্ঞাসা করেন, ট্রেনে কে আগুন দিতে পারবেন, তখন একজন রাজি হয়। পরে রবিউল ইসলাম বলেন, কিশোরগঞ্জ থেকে আগত কোনো ট্রেন ঢাকায় প্রবেশের পর বা নারায়ণগঞ্জ রুটের ট্রেনে আগুন দেওয়ার জন্য। সে অনুযায়ী মিটিংয়ে থাকা একজনকে ট্রেনে আগুন দেওয়ার জন্য দায়িত্ব দেন রবিউল ইসলাম নয়ন।

এ প্রসঙ্গে ডিবিপ্রধান অতিরিক্ত কমিশনার হারুন-অর-রশীদ বলেন, ‘যুবদল নেতা রবিউল ইসলাম নয়নের তত্ত্বাবধানে যুবদলের কয়েকটি টিম লালবাগের কয়েকজন দাগি সন্ত্রাসীদের দিয়ে বেনাপোল এক্সপ্রেসে ট্রেনে আগুন লাগানো হয়। ভিডিও কনফারেন্সে বলা হয়, ট্রেনে কে আগুন লাগাবেন? কনফারেন্সে থাকা ১০-১২ জনের মধ্যে একজন বলেন তিনি আগুন লাগাতে পারবেন। তবে তদন্তের স্বার্থে এই মুহূর্তে তার নামটি আমরা বলব না।’

হারুন-অর-রশীদ বলেন, ‘এ ছাড়া ভিডিও কনফারেন্সে থাকা আরও তিনজন আগুন লাগাতে পারবে বলে জানায়। তারা ২০১৩-১৪ সালে বিভিন্ন এলাকায় বোমা নিক্ষেপ ও অগ্নিসংযোগ করেছিল। তারা মিলে যাত্রাবাড়ীর আশপাশের এলাকা থেকে ট্রেনটিতে অগ্নিসংযোগ করে।’

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: protidinerbangladesh.pb@gmail.com

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: pbad2022@gmail.com

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: pbonlinead@gmail.com

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: pbcirculation@gmail.com

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা