× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

ব্লক শাড়িতে আরাম

ঈষিতা আক্তার তানিয়া

প্রকাশ : ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৭:২৫ পিএম

 ব্লক শাড়িতে আরাম

নারীর অনুভূতি ও আবেগের আরেক নাম শাড়ি। আমাদের দেশের প্রতিটি অনুষ্ঠান রাঙিয়ে নারীদের সাজিয়ে তুলতে শাড়ির জুড়ি মেলা ভার। তার সঙ্গে শাড়ির ধরন- বৈচিত্র্যের তো অভাব নেই। আর ফ্যাশনধারা যতই বদলাক, মূল স্রোত কিন্তু রয়েই যায়। ফ্যাশন–দুনিয়ায় ব্লক প্রিন্ট তেমনই ধারা।

৩৫০০ থেকে ১৩০০ খ্রিষ্টপূর্বাব্দের ভেতর, অর্থাৎ সিন্ধু সভ্যতার আমলে ব্লক প্রিন্টের খোঁজ পাওয়া যায়। পরে মোঘল পৃষ্ঠপোষকতায় উপমহাদেশে ব্লক প্রিন্ট বিকাশ লাভ করে। যুক্ত হয় ফুলের মোটিফ। এভাবে যুগ যুগ ধরেই ব্লক প্রিন্ট আর স্ক্রিন প্রিন্ট টিকে আছে, খালি সময়ের সঙ্গে বদলেছে ডিজাইন আর প্যাটার্ন। তাছাড়া ব্লকের শাড়ি সুলভমূল্যে যেকোনো ডিজাইনে তৈরি করা যায়। পরতেও বেশ আরামদায়ক। তাই যেকোনো বয়সি, শ্রেণি-পেশার নারীর পছন্দের শীর্ষে ব্লক প্রিন্ট শাড়ি।


ব্লকের নকশা

শক্ত কাঠের মোটা তক্তার ওপর যেকোনো নকশা তুলে এরপর সূক্ষ্ম হাতিয়ার দিয়ে নকশা তোলা হয়। সে নকশার কাঠের টুকরোকে রঙে চুবিয়ে কাপড়ে ফুটিয়ে তোলা হয় রঙবেরঙের ডিজাইন। যেকোনো নকশা পছন্দ করে কাঠ কেটে সে নকশা ব্লকে রূপ দেওয়া যায়। এরপর ব্লকের রঙ তৈরি করে ছোটবড় বিভিন্ন নকশার ব্লক ডাইসে রঙ লাগিয়ে ডিজাইন ফুটিয়ে তোলা হয় শাড়িতে। সে ক্ষেত্রে শাড়ির আঁচল, পাড়ে এক ধরনের ডিজাইন করে জমিনে অন্য নকশা করা হয়। কখনও আঁচল আর পাড়ে কাজ রাখা হয় জমিন একদম ফাঁকা। কখনও আবার ছোট ছোট ব্লকের নকশায় পুরো শাড়িতে কাজ করা হয়।

যেভাবে করা হয়

শাড়ির রঙের সঙ্গে মিলিয়ে অনেক সময় এক-দুই শেডে উজ্জ্বল ও গাঢ় রঙে ব্লক করা হয়। কখনও আবার কনট্রাস্ট রঙে। একটা শাড়ি ব্লক করার আগে ধুয়ে রোদে শুকিয়ে নেওয়া হয় মাড় ছাড়ানোর জন্য। মাড় ছাড়িয়ে নিলে কাপড়ে ব্লক বসে ভালোভাবে। এরপর ইস্তিরি করে ব্লকের টেবিলে বেছানো হয়। ছোট আলপিন দিয়ে সুন্দর করে সেট করা হয় টেবিলের সঙ্গে। এবার ইচ্ছেমতো রঙ ও ডিজাইন শাড়ি রাঙানোর পালা। ব্লকের রঙ টেকসই করতে প্রিন্ট করা শাড়ি কড়া রোদে শুকিয়ে নেওয়া হয়। এরপর উল্টো দিকে ইস্তিরি করে রঙ পাকা করা হয় যাতে ধোয়ার সময় রঙ না ছড়ায়।

ব্লকের নকশায় বৈচিত্র্য

ব্লক আগে খুব একঘেয়ে লাগলেও এখন এর চাহিদা অনেক। ব্লকে ম্যাট রঙের পাশাপাশি মেটালিকের ছোঁয়াও দেখা যায় এখন। সোনালি, রুপালি, কপার ও অন্যান্য মেটালিক ব্লক এখন কাপড় করে তুলছে অনেক বেশি সুন্দর ও আকর্ষণীয়। এখন নানা উৎসব মাথায় রেখে বিভিন্ন ফ্যাশন হাউস ও অনলাইন বিক্রেতা আরামদায়ক ফেব্রিকে ব্লকের প্রিন্ট করা পোশাক সম্ভার আনে। মসলিন থেকে শুরু করে জর্জেট, সিল্ক, হাফসিল্ক, সুতি সব কাপড়েই ব্লক সমানভাবে সমাদৃত। তবে সুতি, এন্ডি সিল্ক, হাফসিল্ক এসব কাপড়ে ব্লক টেকসই হয় বেশিদিন। ব্লকের কাপড় যত্ন করে পরলে সুন্দর থাকে অনেক দিন। কাপড়ের প্রকারভেদ ও ভিন্ন ভিন্ন ডিজাইনের ওপর ভিত্তি করে বিভিন্ন দামে মেলে ব্লক প্রিন্টের পোশাক।

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: protidinerbangladesh.pb@gmail.com

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: pbad2022@gmail.com

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: pbonlinead@gmail.com

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: pbcirculation@gmail.com

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা