× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

কাল শুরু হচ্ছে ডিসি সম্মেলন, গুরুত্ব পাবে যেসব বিষয়

প্রবা প্রতিবেদক

প্রকাশ : ০২ মার্চ ২০২৪ ১৭:৫৭ পিএম

আপডেট : ০২ মার্চ ২০২৪ ১৮:৩৪ পিএম

কাল শুরু হচ্ছে ডিসি সম্মেলন, গুরুত্ব পাবে যেসব বিষয়

সরকারের কর্মকাণ্ড মাঠপর্যায়ে ত্বরান্বিত করার পাশাপাশি নীতিনির্ধারণী ও উন্নয়ন কর্মসূচির বিষয়ে দিকনির্দেশনা পেতে রবিবার থেকে শুরু হচ্ছে জেলা প্রশাসক সম্মেলন। এদিন সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে চার দিনব্যাপী এ সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উপস্থিত থাকবেন দেশের সকল জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনাররা।

শনিবার ( ২ মার্চ) সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর বাকি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে।’

এবারের সম্মেলন ৩ থেকে ৬ মার্চ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই চার দিনে স্পিকার, প্রধান বিচারপতির সঙ্গে জেলা প্রশাসকদের সৌজন্য সাক্ষাৎ ও নির্দেশনা গ্রহণ ও মতবিনিময় করবেন। এ ছাড়া প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ ও সামরিক-বেসামরিক সমন্বয়বিষয়ক অধিবেশন সংযুক্ত করা হয়েছে।

অধিবেশনে মোট অধিবেশন ৩০টি। এর মধ্যে একটি উদ্বোধন অনুষ্ঠান, একটি স্পিকারের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও মতবিনিময় এবং একটি প্রধান বিচারপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও নির্দেশনা গ্রহণ এবং অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতা দুটি। মোট ৫৬টি মন্ত্রণালয়/বিভাগ/সংস্থার মন্ত্রী/উপদেষ্টা/প্রতিমন্ত্রী/সিনিয়র সচিব/সচিবরা সম্মেলনে অংশ নেবেন।

এবার মোট ৩৫৬টি আলোচ্য বিষয় নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে জনসেবা বৃদ্ধি, জনদুর্ভোগ হ্রাস করা, রাস্তাঘাট ও ব্রিজ নির্মাণ, পর্যটনের বিকাশ, আইন-কানুন বা বিধিমালা সংশোধন, জনস্বার্থ সংরক্ষণের বিষয়গুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করা হয়েছে। বেশিসংখ্যক প্রস্তাব ২২টি এসেছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ থেকে।

প্রধান আলোচ্য বিষয়ে থাকছে, ভূমি ব্যবস্থাপনা, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়ন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহের কার্যক্রম জোরদারকরণ; দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, ত্রাণ ও পুনর্বাসন কার্যক্রম; স্থানীয় পর্যায়ে কর্ম-সৃজন ও দারিদ্র্য বিমোচন কর্মসূচি বাস্তবায়ন; সামাজিক নিরাপত্তাবেষ্টনী কর্মসূচি বাস্তবায়ন; তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহার এবং ই-গভর্ন্যান্স; শিক্ষার মান উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ; স্বাস্থ্যসেবা ও পরিবার কল্যাণ; পরিবেশ সংরক্ষণ ও দূষণরোধ; ভৌত অবকাঠামোর উন্নয়ন ও উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও সমন্বয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন বলেন, ‘৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং নতুন সরকার দায়িত্ব নিয়েছে। এরই মধ্যে ইশতেহার বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। যারা মাঠপর্যায়ে কাজ করবেন তাদের দিকনির্দেশনা দেওয়া হবে জেলা প্রশাসক সম্মেলনে। গত বছর তিন দিন সম্মেলন হয়েছিল। আসলে তিন দিনে সকল আলোচনা সম্ভব হয় না, সেজন্য এবার চার দিনব্যাপী সম্মেলন হবে। এই চার দিনে প্রধান বিচারপতি ও স্পিকারের সঙ্গে অধিবেশন থাকবে। তবে রাষ্ট্রপতি দেশে না থাকায় তার সঙ্গে সাক্ষাৎ হবে না। প্রতিবছর জেলা প্রশাসকদের কাছ থেকে প্রস্তাব চাওয়া হয়। এবারও প্রস্তাব আসছে। সব মিলিয়ে সম্মেলনে এবার ৩৫৬টি আলোচ্য বিষয় থাকছে।’

গত বছরের সম্মেলনের সিদ্ধান্ত ও বাস্তবায়নের তথ্য তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘গত বছর সম্মেলন জানুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিত হয়। এবার নির্বাচন থাকায় মার্চে হচ্ছে। গত বছর মোট ২১২টি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এর মধ্যে ১৩০টি বাস্তবায়ন, বাস্তবায়নাধীন ৮২টি। শতকরা হিসাবে বাস্তবায়ন ৬২ শতাংশ।’

এতে মন্ত্রিপরিষদ সন্তুষ্ট উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বাস্তবায়নের এখনও চার বছর বাকি। অতএব বাস্তবায়নে অসন্তুষ্ট হওয়ার কারণ দেখছি না।’

বাস্তবে মাঠপর্যায়ের বাস্তবায়নের হার কম; এটা নজরদারি করার কোনো উদ্যোগ নেওয়া হবে কি-নাপ্রশ্নে মাহবুব হোসেন বলেন, ‘আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখব। তবে অনেক জেলা প্রশাসক নিজ উদ্যোগে বাস্তবায়ন করছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘এবারই প্রথম এই সম্মেলনে সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিবদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তারা অভিজ্ঞতা শেয়ার করবেন। এ পর্যন্ত তিনজন আসবেন বলে জানা গেছে। সম্মেলনে কী কী নির্দেশনা দেওয়া হবে, তার রেকর্ড আমরা রাখব। পরে দেখব সেসব বাস্তবায়ন করা হলো কি না।‘

জেলা প্রশাসক সম্মেলনে মন্ত্রী ও সচিবদের উপস্থিতিতে নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। মাঠপর্যায়ে কাজ করতে গিয়ে নানা সুবিধা-অসুবিধা তুলে ধরেন জেলা প্রশাসকরা। এর বিপরীতে তাদের নানা দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়। জেলা প্রশাসকরা মাঠপর্যায়ে সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেন। সেজন্য এই সম্মেলন এবং জেলা প্রশাসকদের প্রস্তাব বিশেষ গুরুত্ব বহন করে।
শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: protidinerbangladesh.pb@gmail.com

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: pbad2022@gmail.com

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: pbonlinead@gmail.com

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: pbcirculation@gmail.com

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা