× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

চিকিৎসায় বৈষম্য দূর হোক

ডা. মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ

প্রকাশ : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১১:১৫ এএম

চিকিৎসায় বৈষম্য দূর হোক

২০০০ সালে প্যারিসে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড সামিটে বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রপ্রতিনিধি সম্মিলিতভাবে ৪ ফেব্রুয়ারিকে বিশ্ব ক্যানসার দিবস হিসেবে পালনের ঘোষণা দেন। বিশ্ব ক্যানসার দিবসের লক্ষ্য-উদ্দেশ্য মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি, ক্যানসারের বিভিন্নতা বোঝা এবং সেই সঙ্গে বিশ্বের প্রতিটি রাষ্ট্রকে এ সমস্যাটি সম্পর্কে অবগত করা। ক্যানসারে প্রতি বছর প্রায় ৯ দশমিক ৬ মিলিয়ন মানুষ মারা যায়। ক্যানসারের পেছনে অনেক কারণ রয়েছে। তবে তামাকজাত পণ্যের কারণে সারা পৃথিবীতে ২২ শতাংশ মানুষ ক্যানসারে আক্রান্ত হয়। আমাদের দেশেও ক্যানসার আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। আক্রান্তের মধ্যে ৩০ থেকে ৬৯ বছর বয়সি শতকরা প্রায় ৫০ ভাগের অকালমৃত্যু হয়। দেশের প্রায় ২৬ শতাংশ মানুষ চিকিৎসার সুব্যবস্থা থেকে বঞ্চিত। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ক্যানসার আক্রান্তদের অকালমৃত্যু রোধে দ্রুত রোগ শনাক্ত ও চিকিৎসা শুরুর ওপর গুরত্ব আরোপ করেছে। ২০৫০ সালের মধ্যে ক্যানসার আক্রান্তের হার ৭৭ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে বলে পূর্বাভাস জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ইন্টারন্যাশনাল এজেন্সি ফর রিসার্চ অন ক্যানসার (আইএআরসি)।

সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে আইএআরসি জানায়, ২০২২ সালে আনুমানিক ২০ মিলিয়ন মানুষ ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছে। ২০৫০ সালের মধ্যে ৩৫ মিলিয়নের বেশি মানুষ নতুন করে ক্যানসারে আক্রান্ত হবে বলে অনুমান করা হয়েছে। এ পূর্বাভাস অনুসারে বিশ্বব্যাপী নতুন ক্যানসার আক্রান্তের সংখ্যা ২০৫০ সালে ৩৫ মিলিয়নে পৌঁছবে, যা ২০২২ সালের তুলনায় ৭৭ শতাংশ বেশি। আইএআরসি পরিচালিত একটি সমীক্ষায় দেখা যায়, ২০২২ সালে ক্যানসার আক্রান্ত হয়ে আনুমানিক ৯ দশমিক ৭ মিলিয়ন মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ১৮৫ দেশে ৩৬ ধরনের ক্যানসারের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে, যার প্রভাবে এত অধিক মানুষের মৃত্যু হয়। সমীক্ষার তথ্যের ভিত্তিতে আইএআরসি তার দ্বিবার্ষিক প্রতিবেদনের পাশাপাশি ২০৫০ সালের জন্য এমন আভাস দেয়। প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজন জীবদ্দশায় ক্যানসারে আক্রান্ত হয়। প্রতি নয়জন পুরুষের মধ্যে একজন এবং ১২ নারীর মধ্যে একজন ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা যায় বলেও জানায় সংস্থাটি।

বিশ্বব্যাপী দ্রুতবর্ধমান ক্যানসারের কারণ হিসেবে জনসংখ্যা বৃদ্ধি এবং পরিবেশগত ঝুঁকিকে দায়ী করছে সংস্থাটি। মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে তামাক ও অ্যালকোহল আসক্তি বৃদ্ধি এবং ক্রমবর্ধমান বায়ুদূষণ ক্যানসার ঝুঁকি বাড়ার মূল কারণ বলে উল্লেখ করেছে আইএআরসি। দেশে তামাকজনিত ক্যানসারগুলোয় পুরুষ বেশি আক্রান্ত হয়। এ ছাড়া খাদ্যনালি ও কোলন ক্যানসারেও পুরুষ বেশি আক্রান্ত হয়। প্রোস্টেট ক্যানসার তুলনামূলক কম হয়। আর নারীদের ক্ষেত্রে স্তন ক্যানসার, জরায়ুমুখের ক্যানসার, খাদ্যনালি, কোলন ক্যানসার, ডিম্বাশয়ের ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে। তবে আজকাল নারীদের ফুসফুস ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যাও বাড়ছে। নারী-পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রেই নাক-কান-গলার ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার হার বেড়ে চলেছে।

প্রচলিত ক্যানসারসমূহের মধ্যে সবচেয়ে বেশি দেখা যায় যথাক্রমে ফুসফুস, স্তন ও অন্ত্রের ক্যানসার। বৈশ্বিকভাবে এ বিষয়কে গুরুত্বের সঙ্গে যদি এখনই না নেওয়া হয় তবে ধারণা করা যায়, ২০৩০ সাল নাগাদ বছরে ক্যানসারজনিত মৃত্যুর সংখ্যা ১৩.১ মিলিয়নে দাঁড়াবে। ক্যানসার নিয়ে এখন ব্যাপক গবেষণা হচ্ছে এবং স্বীকৃত কোনো ওষুধ পাওয়া না গেলেও এর কিছু চিকিৎসাপদ্ধতি রয়েছে। তবে এ ক্ষেত্রে সচেতনতার বিকল্প নেই। খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন, সুস্থ জীবনচর্চা এবং তামাকজাত পণ্য বর্জনের মাধ্যমে ক্যানসার নামক মারণব্যাধি থেকে দূরে থাকা সম্ভব।

  • প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, জাতীয় রোগী কল্যাণ সোসাইটি
শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: protidinerbangladesh.pb@gmail.com

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: pbad2022@gmail.com

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: pbonlinead@gmail.com

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: pbcirculation@gmail.com

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা