× ই-পেপার প্রচ্ছদ জাতীয় রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত ফিচার শিল্প-সংস্কৃতি ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

ভেঙে যাচ্ছে বিএনপি জোটের হাট : ওবায়দুল কাদের

প্রবা প্রতিবেদক

১৭ জানুয়ারি ২০২৩ ২০:৪২ পিএম । আপডেট : ১৭ জানুয়ারি ২০২৩ ২১:০৯ পিএম

রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের আলোচনায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ছবি : প্রবা

বিএনপি জোটের হাট ভেঙে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) বিকালে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপির বাজার ভেঙে যাচ্ছে। বিএনপির জোটের হাট ভেঙে যাচ্ছে। এই জোট দিয়ে শেখ হাসিনার সরকার হটাবেন, সেই আশা দুরাশার বালুর মতো হয়ে যাবে।’

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক নানা মেরুকরণের কবলে পড়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। দলীয় ও অন্যান্য সূত্র বলছে, দলটির নেতারা একাধিক ধারা-উপধারায় জড়িয়ে পড়ছেন। বর্তমানে বিএনপির ভেতরে ৬টি ধারা সচল রয়েছে।

বিএনপি ও তাদের জোট নেতারা হতাশা থেকে অসুস্থ কি না প্রধান অতিথির বক্তব্যে সেই প্রশ্নও তোলেন ওবায়দুল কাদের। বলেন, ‘ফখরুল সাহেব অসুস্থ, মির্জা আব্বাস অসুস্থ, মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কথাবার্তা শুনে তারা বিবর্ণ। তারা আসলে কি অসুস্থ! তারপর শুনি মান্নান সাহেব হাসপাতালে, আ স ম রব ভাইও হাসপাতালে, সব কি হতাশা থেকে অসুস্থ হয়ে গেছেন! ৫৪ দল, ৫৪ মত, ৫৪ পথ।’

বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের মধ্যে কোনো সমন্বয় নেই বলেও অভিযোগ করে ক্ষমতাসীন দলের এই জ্যেষ্ঠ নেতা  বলেন, ‘বিএনপির জন্য আরও খারাপ খবর আছে। ফখরুল নেই, আব্বাস হাসপাতালে। এখন পাতি নেতারা কথা বলছে। এক পাতি নেতা বলেছে, সরকার হটাবেন আন্দোলনের সুনামি দিয়ে। হাতি ঘোড়া গেল তল, ভেড়া বলে কত জল।’ 

বিএনপি নেতাকর্মীদের পরিহাস করার পাশাপাশি দলটির কর্মসূচি নিয়ে কঠোর সমালোচনা উঠে আসে তার বক্তব্যে। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আন্দোলন করলেন ১৫ বছর ধরে, আন্দোলন নামক নদীতে ঢেউ উঠাতে পারলেন না। সাগরের উত্তাল তরঙ্গ তো দূরের কথা। যারা ঢেউ বানাতে পারেনি রাজপথে, সেই আন্দোলন কতদিন টিকবে বলা মুশকিল। আন্দোলনের ঘরে এখন ফের হতাশা নেমে এসেছে।’ 

বক্তব্যে বিএনপিকে নির্বাচনে আসার আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, সব কিছু ছেড়ে দিয়ে, সরকারের পরিবর্তন যদি চান নির্বাচনে আসুন। আমরা যারা সরকারে আছি, এই সরকার হবে রুটিন সরকার। এই সরকার নির্বাচনের কার্যক্রমে হস্তক্ষেপ করবে না।’

আগামী নির্বাচনে সরকারের ভূমিকা কী হবে তারও ব্যাখ্যা দেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক। বলেন, ‘হোম মিনিস্টারের যে কাজ সেই কাজ তখন নির্বাচন কমিশন করবে। পুলিশের লোকজনকে সরানো, প্রমোশন দেওয়া, তাদের ট্রান্সফার করা, এসব কাজ তখন হোম মিনিস্টার করবে না, করবে নির্বাচন কমিশন।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপির আন্দোলনের টাকা আসে কোথা থেকে সেটা আমরা জানি, যারা শেখ হাসিনা সরকারকে হটানোর জন্য টাকা দিচ্ছে তাদের খবর আছে।’

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় দলীয় নেতাকর্মীদের নানা দিকনির্দেশনা দেন দলের সাধারণ সম্পাদক। বলেন, ‘মুখে বলি বঙ্গবন্ধুর সৈনিক, নেতা হয়ে মঞ্চে উঠলে আদর্শের কথা মনে থাকে না। নেতাদের ভিড়ে আসল কর্মী চেনা দায়। স্মার্ট বাংলাদেশের জন্য স্মার্ট কর্মীবাহিনী দরকার। বাংলাদেশের জন্য সুশৃঙ্খল আওয়ামী লীগ চাই।’ 

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগকে শৃঙ্খলাবদ্ধ করতে হবে। যারা চাঁদাবাজি মাস্তানি করবে তাদের সঙ্গে কোনো আপস নয়। তাদের বিরুদ্ধে আপসহীন লড়াই চলবে। মুখে আওয়ামী লীগের আদর্শ লালন করবেন, অন্তরে সে আদর্শ লালন করবেন না তেমন নেতার দরকার নেই।’

দলের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের শত্রু আওয়ামী লীগ হলে আওয়ামী লীগকে কে বাঁচাবে? ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করার শক্তি বাংলাদেশের কোনো রাজনৈতিক দলের নেই।’

ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বেনজীর আহমদের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য আব্দুল বাতেন প্রমুখ। 

সভা সঞ্চালনা করেন ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুন। 

শেয়ার করুন-

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯, +৮৮০১৮১৫৫৫২৯৯৭ । ই-মেইল: [email protected]

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা